বিরলে বাস

শ্রীযুক্ত দর্পণ সম্পাদক মহাশয় বরাবরেষু।
অনুগ্রহপূর্ব্বক আমার কএক পংক্তি আপনকার
দর্পণে প্রকাশ করিতে আজ্ঞা হয়।
বিষয়ে বিরক্ত হয়ে, স্নিগ্ধ কুঞ্জবনে।
যেই জন বাস করে সুখী সেই জনে ||
সেই নির্জ্জন বটে কিন্তু একা নয়।
নিত্য প্রেম সঙ্গে কথা নিত্য নিত্য কয় ||
কতমত কাণাকাণি রাজার গোচরে।
ভালকে অবজ্ঞা যাহে মন্দে শ্রদ্ধা করে ||
তাহাতে সুমিষ্ট মিষ্ট, পক্ষির বিলাপ।
বিয়োগিনী পক্ষিণীর, কঠোর সন্তাপ ||
তুচ্ছ মান হতে জন্মে, যে প্রশংসা বায়।
তাহা হতে মলয়জে, মিষ্ট বলা যায় ||
আর মিষ্ট নবপুষ্পে সুগন্ধি পবন।
ধন বিষ হতে মিষ্ট, নদীর জীবন ||
চাতুরী আশঙ্কা দুঃখে পূর্ণিত সংসার।
সত্য সুখ বনে, শুদ্ধ ছায়া সহকার ||*
শ্রীবঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
-‘সমাচার দর্পণ’, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ১৮৫২
* ‘সমাচার দর্পণে’ মুদ্রণকালে কবিতাটিতে কয়েকটি মারাত্মক ভুল হইয়াছিল। বঙ্কিমচন্দ্র, ১০ মার্চ্চ ১৮৫২ তারিখের ‘সংবাদ প্রভাকরে’ এই ভুলগুলি সংশোধন করিয়া একখানি পত্র লেখেন। (‘শনিবারের চিঠি’ ১৩৩৮, পৃ. ২৮৯-৯১ দ্রষ্টব্য।) এই কবিতাটিতে ভুলগুলি সংশোধন করা হইয়াছে।