Our Blog

বায়ু


১
জন্ম মম সূর্য্য-তেজে, আকাশ মণ্ডলে।
         যথা ডাকে মেঘরাশি,
         হাসিয়া বিকট হাসি,
                            বিজলি উজলে৷৷
         কেবা মম সম বলে,
হুহুঙ্কার করি যবে, নামি রণস্থলে।
        কানন ফেলি উপাড়ি,
        গুঁড়াইয়া ফেলি বাড়ী,
        হাসিয়া ভাঙ্গিয়া পাড়ি,
                           অটল অচলে।
হাহাকার শব্দ তুলি এ সুখ অবনীতলে৷৷
২
পর্ব্বতশিখরে নাচি, বিষম তরসে,
          মাতিয়া মেঘের সনে,
          পিঠে করি বহি ঘনে,
                           সে ঘন বরষে।
          হাসে দামিনী সে রসে।
মহাশব্দে ক্রীড়া করি, সাগর উরসে৷৷
          মথিয়া অনন্ত জলে
          সফেন তরঙ্গবদলে,
          ভাঙ্গি তুলে নভস্তলে,
                            ব্যাপি দিগ্‌দশে।
শীকরে আঁধারি জগৎ, ভাসাই দেশ অলসে৷৷
৩
বসন্তে নবীন লতা, ফুল দোলে তায়।
          যেন বায়ু সে বা নহি,
          অতি মৃদু মৃদু বহি,
                            প্রবেশি তথায়৷৷
           হেসে মরি যে লজ্জায়-
পুষ্পগন্ধ চুরি করি, মাখি নিজ গায়ে৷৷
           সরোবরে স্নান করি,
           যাই যথায় সুন্দরী,
           বসে বাতায়নোপরি,
                             গ্রীষ্মের জ্বালায়৷৷
           তাহার অলকা ধরি,
           মুখ চুম্বি ঘর্ম্ম হরি,
           অঞ্চল চঞ্চল করি,
                             স্নিগ্ধ করি কায়৷৷
আমার সমান কেবা যুবতিমন ভুলায়?
৪
বেণুখণ্ড মধ্যে থাকি, বাজাই বাঁশরী।
         রন্ধ্রে রন্ধ্রে যাই আসি,
         আমিই মোহন বাঁশী,
                           সুরের লহরী৷৷
         আর কার গুণে হরি,
ভুলাইত বৃন্দাবনে, বৃন্দাবনেশ্বরী?
         ঢল ঢল চল চল,
         চঞ্চল যমুনা জল,
         নিশীথে ফুলে উজল,
                             কানন বল্লরী,
তার মাঝে বাজিতাম বংশীনাদ রূপ ধরি৷৷
৫
জীবকণ্ঠে যাই আসি, আমি কণ্ঠস্বর!
        আমি বাক্য, ভাষা আমি,
        সাহিত্য বিজ্ঞান স্বামী,
                        মহীর ভিতর৷৷

        সিংহের কণ্ঠেতে আমিই হুঙ্কার
        ঋষির কণ্ঠেতে আমিই ওঙ্কার
        গায়ককণ্ঠেতে আমিই ঝঙ্কার,
                            বিশ্ব-মনোহর৷৷
        আমিই রাগিণী আমি ছয় রাগ,
        কামিনীর মুখে আমিই সোহাগ,
        বালকের বাণী অমৃতের ভাগ,
                           মম রূপান্তর৷৷
        গুণ গুণ রবে ভ্রময়ে ভ্রমর,
        কোকিল কুহরে বৃক্ষের উপর,
        কলহংস নাদে সরসী ভিতর
                         আমারি কিঙ্কর৷৷
আমি হাসি আমি কান্না, স্বরূপে শাসি নর৷৷
৬
কে বাঁচিত এ সংসারে, আমার বিহনে?
         আমি না থাকিলে ভুবনে?
         আমিই জীবের প্রাণ,
         দেহে করি অধিষ্ঠান,
                            নিশ্বাস বহনে।
          উড়াই খগে গগনে।4 
দেশে দেশে লয়ে যাই, বহি যত ঘনে।
          আনিয়া সাগরনীরে,
          ঢালে তারা গিরিশিরে
          সিক্ত করি পৃথিবীরে,
                           বেড়ায় গগনে।
মম সম দোষে গুণে, দেখেছ কি কোন জনে?
৭
মহাবীর দেব অগ্নি জ্বালি সে অনলে।
        আমিই জ্বালাই যাঁরে,
   আমিই নিবাই তাঁরে,
                    আপনার বলে।
        মহাবলে বলী আমি, মন্থন করি সাগর।
        রসে সুরসিক আমি, কুসুমকুলনাগর ||
        শিহরে পরসে মম কুলের কামিনী।
        মজাইনু বাঁশী হয়ে, গোপের গোপিনী ||
        বাক্যরূপে জ্ঞান আমি স্বরূপে গীত।
        আমারি কৃপায় ব্যক্ত ভক্তি দম্ভ প্রীত ||
        প্রাণবায়ুরূপে আমি রক্ষা করি জীবগণ।
হুহু হুহু! মম সম গুণবান্ আছে কোন জন?

No comments:

Post a Comment

বঙ্কিম রচনাবলী Designed by Templateism | Blogger Templates Copyright © 2014

Theme images by mammuth. Powered by Blogger.